Tuesday, March 30, 2021

জুম্মা মোবারক স্ট্যাটাস

জুম্মা মোবারক স্ট্যাটাস জুম্মাহ বার সপ্তাহের সর্বাধিক সুন্দরতম একটি দিন। এই বিশেষ দিনটি প্রতি ছয় দিন পর পর আসে। শুক্রবারে যোহরের নামাজের পরিবর্তে জুম্মার নামাজ আদায় করা হয়ে থাকে। ইসলামি শরিয়তের বিধানে জুম্মার দিনের মাহাত্ম্য ও গুরুত্ব সীমাহীন

জুম্মা মোবারক স্ট্যাটাস

হে মুমিনগন

জুমআর দিনে যখন

সালাতের আজান দেয়া হয়

তখন তোমরা আল্লাহর

স্বরন পানে ত্বরা কর,

এবং কেনাবেচা বন্ধ কর,

এটা তোমাদের জন্য উত্তম.

যদি তোমরা এটা বুঝ !

জুম্মা মোবারক

 

মুসলিম আমার নাম !

কুরআন আমার জান !

নামাজ আমার গাড়ি !

জান্নাত আমার বাড়ী !

আল্লাহ্ আমার রব !

নবী আমার সব !

ইসলাম আমার ধর্ম!

এবাদত আমার কর্ম!

জুম্মা মোবারক

 

নামাজ রোজা নাহি কাজা করবো না ভাই কভু,

নয়তো রাজা দিবেন সাজা যিনি মোদের প্রভু,

নামাজ রোজা অনেক সোজা ইচ্ছে যদি করো,

মনের মতো সময় মতো নামাজ রোজা করো,

পণ করো আজ পড়বো রাখবো সদা রোজা,

তা না হলে পরকালে পেতে হবে সাজা,

বেহেস্তেতে থাকবো মেতে হবে কত মজা।

জুম্মা মোবারক

 

মাটির দেহ নিয়ে কখনও করিওনা বরাই,

দুচোখ বন্ধ হলে দেখবে পাশে কেউ নাই।

যাকে তুমি আপন ভাবো সে হবে পর,

আপন হবে নামাজ,রোজা অন্ধাকার কবর।

জুম্মা মোবারক

 

 

আরও কিছূ  স্ট্যাটাস পড়ুন

জুম্মা মোবারক পিকচার

ইসলামিক স্ট্যাটাস

ইমোশনাল স্ট্যাটাস

শুভ রাত্রি স্ট্যাটাস

 

নামাজ সব সমস্যার সমধান।

নামাজ সব রোগের প্রধান ওষুধ।

নামাজ নিজে পড়ুন।।

অন্যকে পড়ার জন্য তাগিদ দিন।

নামাজই আপনার আসল ইনকাম।

নামাজ বেহেস্তের চাবি।

জুম্মা মোবারক

 

ইসলাম শান্তির ধর্ম।

এলেম শিক্ষা করে যে ব্যক্তি পরিতৃপ্ত হতে না পারে,

ধনের প্রাচুর্য তাকে কথনও সুখের

সন্ধান দিতে পারবে না।

জুম্মা মোবারক

 

নামাজ কে আমি ভালবাসি,

নদীর ঢেও পাখির গান কুরআন আমার সংবিধান,

সবুজ শেমল রুপে ঘেরা ইসলাম ধর্ম সবার সেরা।

জুম্মা মোবারক

 

আমার বান্দাদেরকে বলে দিন,

তারা যেন যা উত্তম এমন কথাই বলে।

শয়তান তাদের মধ্যে সংঘর্ষ বাধায়।

নিশ্চয় শয়তান মানুষের প্রকাশ্য শত্রু।

(সুরা বানী ইসরাঈল-৫৩) জুম্মা মোবারক

যে ব্যক্তি আল্লাহ ও আখেরাতের উপর ঈমান রাখে,

সে যেন উত্তম কথা বলে না হয় চুপ থাকে'(সহীহ বুখারী)

জুম্মা মোবারক

 

মানুষ সব সময় “মৃত্যু”

থেকে বাঁচার “চেষ্টা” করে,

কিন্তূ জাহান্নাম” থেকে” নয়,

অথচ “মানুষ” চাইলে “জাহান্নাম”থেকে”

বাঁচতে “পারে” কিন্তু “মৃত্যু” থেকে নয় ।

জুম্মা মোবারক

 

মাগো” আমি শিখব না আর হাট্টিমা টিম টিম,

কোরআন” থেকে শিখব আমি

আলিফ -লাম- মীম, ১ টা করে

হরফে ১০ টা করে নেকী,

চল সবাই আজ থেকে কোরআন হাদীস শিখি

জুম্মা মোবারক

 

কিসের আমার বাহাদুরী কিসের অহংকার

দম ফুরালে মাটির নিচে বন্ধ হবে দ্বার।

এই দুনিয়ার আলো বাতাস লাগবে না আর গায় কে

যাবে রে অচিন দেশে পাল তোলা এই নায়।

তুমি যাবে আমি যাবো যাবে প্রিয়জন আসা

যাওয়া চলছে খেলা থাকবে পড়ে ধন।।

জুম্মা মোবারক

 

অবুঝ শিশুরা যেমন কেঁদে কেঁদে সমস্ত

সমস্যার সমাধান করে তার মায়ের কাছে,

ঠিক তেমনি ভাবে আমাদের উচিৎ আল্লাহর

কাছে কেঁদে কেঁদে সব

সমস্যার সমাধান করে নেওয়া।”

জুম্মা মোবারক

 

যে ব্যক্তি আল্লাহর সন্তুষ্টিরউদ্দেশে

লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ্বলল আল্লাহ্ তারজন্য

দোযখ হারাম করে দিলেন

''[বুখারি ও মুসলিম]

জুম্মা মোবারক বন্দুগন ।

 

হযরত আবু লুবাবা ইবনে আবদুল

মুনযির (রা:) থেকে বর্ণিত,

রাসূলুল্লাহ (সা:) বলেছেন, জুমু’আর

দিন সকল দিনের সরদার। আল্লাহর নিকট সকল

দিনের চেয়ে মর্যাদাবান।

 

কোরবানীর দিন ও ঈদুল ফিতরের দিনের

চেয়ে বেশী মর্যাদাবান।

পাঁচ বেলা সালাত আদায়,

এক জুম’আ থেকে পরবর্তী জুম’আ,

এক রমজান থেকে পরবর্তী রমজানের

মধ্যবর্তী সময়ে হয়ে যাওয়া

সকল (সগীরা) গুনাহের কাফফারা স্বরূপ,

এই শর্তে যে,

বান্দা কবীরা গুনাহ থেকে নিজেকে বাঁচিয়ে রাখবে।”

(মুসলিমঃ ২৩৩)

 

যে ব্যাক্তি ভালভাবে পবিত্র হল

অতঃপর মসজিদে এলো,

মনোযোগ দিয়ে খুৎবা শুনতে চুপচাপ বসে রইল,

তার জন্য দুই জুম’আর মধ্যবর্তী এ সাত দিনের

সাথে আরও তিনদিন যোগ করে মোট দশ দিনের

গুনাহ মাফ করে দেওয়া হয়।

পক্ষান্তরে খুৎবার সময় যে ব্যক্তি পাথর,

নুড়িকণা বা অন্য কিছু নাড়াচাড়া করল

সে যেন অনর্থক কাজ করল।’ (মুসলিমঃ ৮৫৭)

 

জুম’আর সালাতে তিন ধরনের লোক হাজির হয়।

(ক) এক ধরনের লোক আছে যারা মসজিদে

প্রবেশের পর তামাশা করে,

তারা বিনিময়ে তামাশা ছাড়া কিছুই পাবে না।

(খ) দ্বিতীয় আরেক ধরনের লোক আছে যারা

জুম’আয় হাজির হয় সেখানে দু’আ মুনাজাত করে,

ফলে আল্লাহ যাকে চান তাকে কিছু দেন

আর যাকে ইচ্ছা দেন না।

(গ) তৃতীয় প্রকার লোক হল যারা জুম’আয় হাজির হয়,

চুপচাপ থাকে, মনোযোগ দিয়ে খুৎবা শোনে,

কারও ঘাড় ডিঙ্গিয়ে সামনে আগায় না,

কাউকে কষ্ট দেয় না,

তার দুই জুম’আর মধ্যবর্তী ৭ দিন সহ

আরও তিনদিন যোগ করে মোট দশ দিনের

গুনাহ খাতা আল্লাহ তায়ালা মাফ করে দেন।”

(আবু দাউদঃ ১১১৩)

 

জুম্মার দিন খুৎবা শুনা ওয়াজিব।

দয়া করে, খুৎবার সময় কথা বলবেন না।

জুম'আর খুৎবা দুইটি

 

মনে রাখবেন।

জুম্মার দিন হল গরিবদের জন্য হজ্জ।

এই দিনে অনন্য দিনের চেয়ে আলেদা একটা আনন্দ থাকে।

কারণ, সবাই একসাথে মসজিদে সালত আদায় করি।

 

জুম্মার রাতে বা দিনে মৃত্যু-বরণকারী||

রাসুল (স) এরশাদ করেছেন,

যে মুসলমান জুম্মার দিন অথবা রাতে মৃত্যুবরণকরে,

আল্লাহ পাক তাকে কবরের ফেতনা (কবরের আযাব)

থেকে রেহাই দান করবেন।

(আহমদ ও তিরমিযী শরীফ) হে আল্লাহ

অমাদেরকে আপনি পবিত্র জুম্মার দিন বা রাতে মৃত্যু দান কর

যেন কবরের আযাব অমাদেরকে স্পর্শকরতে না পারে-(আমীন)

 

হে মুমিনগন,

জুমআর দিনে যখন সালাতের আজান দেয়া হয়.

তখন তোমরা আল্লাহর স্বরনপানে ত্বরা কর.

এবং কেনাবেচা বন্ধকর. এটা তোমাদের জন্য উত্তম.

যদি তোমরা এটা বুঝ!

 

ஜஜ গেল রাত এল দিন

, ফিরে এল জুম্মার দিন।

ஜ ஜ জুম্মার সময় করবেনা লসস

, জুম্মার নামাজ গরীবদের হজ্জ।

ஜ ஜ জলদি যাও নামাজ পরতে,

গুরুত্ত দাও এই দিনটাকে।

ஜ ஜ হেপ্পী জুম্মাহ মোবারক টু মাই অল ফ্রেন্ড।ஜஜ

 

নতুন আশা,

নতুন দিন,

আজকে হল জুমার দিন।

লাগছে ভাল ছাড়বো ঘর,

মসজিদে যাবো ১২ টার পর।

আকাশে সূর্য দিচ্ছে আলো,

জুমার নামায পরতে লাগবে ভালো।

সকলকে জুম্মা মোবারক

 

আবূল আশআস (রহঃ) নামুরা (রাঃ) থেকে বর্ণিত।

তিনি বলেন, রাসুলুল্লাহ বলেছেন,

যে ব্যক্তি জুম্মার দিন অযু করে তা

তার জন্য যথেষ্ট এবং তা উত্তম কাজ;

আর যে ব্যক্তি গোসল করে তবে তা পরমোত্তম কাজ।

 

আবদুল্লাহ ইবনু মাসলামা (রহঃ)

আবূ সায়ীদ খুদরী (রাঃ) থেকে বর্ণিত,

রাসূল বলেছেনঃ প্রত্যেক প্রাপ্তবয়স্কের

জন্য জুম্মার দিন গোসল করা কর্তব্য ।

No comments:

Post a Comment